পাতা

কী সেবা কীভাবে পাবেন

এই কেন্দ্র থেকে শ্রোতাদের জন্য দৈনন্দিন প্রচারিত অনুষ্ঠান

১) যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চাইঃ ১৯৭১ সালের মহান স্বাধীনতা সংগ্রামের সময় ঘটিত যুদ্ধাপরাধী ও মানবতা বিরোধীদের বিচার সম্পর্কে জনগণকে সচেতন ও উদ্বুদ্ধ করার লক্ষ্যে নাটক, গান, জীবমিত্মকা, আলোচনা,  প্রামাণ্য অনুষ্ঠান ধারাবাহিকভাবে প্রচার করা হচ্ছে। এ সম্পর্কে  অপপ্রচারকারীদের সম্পর্কে সাবধানে থাকার পাশাপাশি বৃহত্তর জনমত গড়ার লক্ষ্যে এসব অনুষ্ঠান প্রচার করা হচ্ছে।

২)  ডিজিটাল বাংলাদেশঃ২০০৮ সালের নির্বাচনে শক্তিশালী নেতৃতবাধীন মহাজোটের ঐতিহাসিক বিজয়ের পেছনে নতুন প্রজন্মসহ দেশের জনগণ বাংলাদেশকে ডিজিটাল করার নির্বাচনী অঙ্গীকারের প্রতি বিপুল সমর্থন জানায়। সে কারণে বিষয়টিকে সর্বাধিক গুরম্নত্ব দিয়ে বাংলাদেশ বেতার, চট্টগ্রাম কেন্দ্র  থেকে ডিজিটাল বাংলাদেশ শেরোনামে একটি ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান প্রচার করা হচ্ছে যা শ্রোতা গোষ্ঠীর কাছে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ সম্পর্কে সরকার গৃহীত বিভিন্ন  পদক্ষেপ বিভিন্ন আঙ্গিকে এখানে তুলে ধরা হয়। চট্টগ্রাম বন্দরকে ডিজিটালাইজড করার সরকারের গৃহিত সাম্প্রতিক পদক্ষেপ এ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে।

৩)  দিনবদলের পালা:   বাংলাদেশের বর্তমান সরকারের দিন বদলের অঙ্গীকার সংক্রামত্ম নির্বাচনী ইশতেহারের প্রতি জনগণ আকুণ্ঠ সমর্থন জানায়। জনমতের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রমের ফলে জনগণের জীবন মানের ইতি বাচক পরিবর্তনের বিভিন্ন দিক এ অনুষ্ঠানে তুলে ধরা হয়।

৪)    মুক্তিযুদ্ধ আমার অহংকার : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এদেশকে স্বাধীন করে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাসত্মবায়নে দলটি সর্বদাই অগ্রণী ভূমিকা পালন করে। সেই আলোকে মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযোদ্ধাদের উপর নাটক, ম্যাগাজিন, সংগীত , আলোচনা অনুষ্ঠান প্রচার করা হয়। জনগণকে মুক্তি যুদ্ধের নঠিক ইতিহাস তুলে ধরার পাশাপাশি মুক্তিযুদ্ধাদের চেতনা বাসত্মবায়না এবং বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ বিনির্মানে ব্যাপক জনমত সৃষ্টি করা এ অনুষ্ঠানের উদ্দেশ্য।

৫)    সন্ত্রাস ও জঙ্গী প্রতিরোধ:  সাক্ষাতকার ভক্স পপ, আলোচনা, নাটক, গান ইত্যাদি ফরমেটে সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ নিরসনে জনসচেতনতা সৃষ্টি করার লক্ষ্যে এ অনুষ্ঠান প্রচার করা হয়।

৬)   কর্মসংস্থান ও যুব সমাজের উন্নয়ন বিষয়ক  ম্যাগাজিন, প্রামান্য, সাক্ষাৎকার, নাটক।

৭)    অবাধ তথ্যপ্রবাহ নিশ্চিত করণ ও সুস্থ বিনোদন এর লক্ষ্যে অনুষ্ঠান।

৮)     ইভটিজিং রোধ কল্পে অনুষ্ঠান।

৯)    ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশ গঠনে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জন, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী ও দারিদ্র বিমোচন কল্পে অনুষ্ঠান।

১0) স্বাধীন বাংলা বেতার সম্পর্কিত অনুষ্ঠান:  ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযyুদ্ধ মুক্তিযুদ্ধাদের মনোবল চাঙ্গা করার জন্য তৎকালীন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র নানা রম্য নাটক, গান, কবিতা আবৃত্তি, চরমপত্র  ইত্যাদির মাধ্যমে এক ঐতিহাসিক ভহমিকা পালন করে। স্বাধীন বাংলা বেতারের উত্তরসুরী হিসেবে বাংলাদেশ বেতার স্বাধীন বাংলা বেতারের শিল্পী, কলা-কুশলীদের নিয়ে মুক্তিযুদ্ধের উপর  বিভিন্ন অনুষ্ঠান প্রচার করছে। ফুলে উঠছে শিল্পীদের মনে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস।

১১)  অহংকারে চিরজাগ্রতঃ  বাংলাদেশের ইতিহাস ঐতিহ্য ও মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক সাক্ষাতকারমুলক/ আলোচনা/ টকশো অনুষ্ঠান প্রচার করা হয়।

১২)   নৈতিক মূল্যবোধ বিষয়ক অনুষ্ঠানঃইসলাম ও দৈনন্দিন জীবন বিষয়ে কথিকা/ আলোচনা/ প্রতিবেদন/ সাক্ষাতকার প্রচার করা হয়।

১৩)   শেকড়ের সন্ধানেঃ চট্টগ্রাম সহ এতদঞ্চলের ইতিহাস,& ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক ডকুমেন্টারি অনুষ্ঠান প্রচার করা হয়।

১৪)  সোনালী প্রত্যাশাঃ জনসংখ্যা,স্বাস্থ্য ও পুষ্টি বিষয়ক অনুষ্ঠানঃ কথিকা/আলোচনা/ সাক্ষাতকার /প্রামান্য অনুষ্ঠান প্রচার করা হয়। এ’ছাড়া জনসংখ্যা বিষয়ক গান /কবিগান/নাটিকা/জীবমিত্মকা/স্পটড্রামা/শেস্নাগান প্রচার করা হয়।

১৫)   কৃষি খামারঃকৃষিবিষয়ক অনুষ্ঠানঃ  আসর ভিত্তিক সজীব প্রচারিত অনুষ্ঠান।

ক) মৎস্য সম্পদঃ কথিকা/আলোচনা/ সাক্ষাতকার /জীবমিত্মকা/প্রতিবেদন/গান প্রচার করা হয়।

খ) প্রাণী সম্পদঃ কথিকা/আলোচনা/ সাক্ষাতকার /জীবমিত্মকা/প্রতিবেদন/গান প্রচার করা হয়।

গ) কৃষি সম্পদঃ কথিকা/আলোচনা/ সাক্ষাতকার /জীবমিত্মকা/প্রতিবেদন/গান প্রচার করা হয়।

এছাড়া  প্রতি সোমবারে ’’গাঁয়ের বধূ’’ শীর্ষক গ্রামীণ মহিলাদের জন্য অনুষ্ঠান প্রচারিত হয়।

১৬) সাহিত্য ও সংস্কৃতিঃ

ক) সাহিত্য বিষয়ক আলোচনা অনুষ্ঠান -সাহিত্য আসর প্রচার করা হয়।

খ) গল্প ও কবিতা বিষয়ক অনুষ্ঠান - কথা ও কবিতা প্রচার করা হয়।

গ) কবিতা আবৃত্তির অনুষ্ঠানঃ পঙতিমালা প্রচার করা হয়।

১৭) বার্ষিকী ও উৎসবাদিঃ  বিশিষ্ট কবি-সাহিত্যিক-রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, সমাজ সেবক, ধর্মীয় ব্যক্তিত্ব, গুনীজনদের (তালিকা ভুক্ত) জম্ম/মৃত্যু দিবস উপলক্ষে আলোচনা/কথিকা/গীতি আলেখ্যসহ জীবন ও কর্ম তুলে ধরে অনুষ্ঠান প্রচারিত হয়।

১৮) বহিঃধারণঃ  চট্রগ্রাম বেতার অঞ্চলে অনুষ্ঠিত সরকারী ও বেসরকারী পর্যায়ের বিভিন্ন অনুষ্ঠানসহ জনগুরম্নত্বপূর্ণ অনুষ্ঠান সমুহ বহিঃধারণ ও প্রচারের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। চট্রগ্রামে অনুষ্ঠিত রাষ্ট্রীয় ও সামাজিক অনুষ্ঠানসমুহে যেখানে প্রায়ই সরকারের মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, এমপি ও উর্দ্ধতন কর্মকর্তাসহ রাজনৈতিক ও সুশীল সমাজের ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত থাকেন - সে অনুষ্ঠানগুলো বহিঃধারণ করে প্রচার করা হয়। মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর চট্রগ্রাম বেতার অঞ্চলের আওতায় অনুষ্ঠিত রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠান সমুহ অত্যমত্ম গুরম্নত্ব সহকারে কভারেজ দেওয়া হয় ও জাতীয় অনুষ্ঠানে  তা প্রচার করা হয়।

১৯) নারী নির্যাতন ও শিশু পাচার রোধঃ এম.ডি.জি’র লÿ্যমাত্রা অর্জনে ও রূপকল্প-২০২১ বাসত্মবায়নে এ’বিষয়ে নিয়মিত কথিকা/ আলোচনা / সাক্ষাতকার / জীবমিত্মকা / স্পটড্রামা প্রচার করা হয়। এছাড়া প্রতিমাসে ১টি ৩০মিনিট স্থিতির আঞ্চলিক ভাষায় এ সংক্রামত্ম আলোচনা অনুষ্ঠান প্রচারিত হয়।

২০) আলোকপাতঃ  প্রভাতী ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান (প্রত্যহ প্রচারিত) চট্রগ্রাম বেতার অঞ্চলের প্রতিদিনের কার্যক্রমের খবর, পরিবেশ ও জীবনঃ পরিবেশ বিষয়ক অনুষ্ঠান, স্বাস্থ্য তথ্যঃ স্বাস্থ্য বিষয়ক অনুষ্ঠান, আইন আদালতঃ আইন ও আইনী পরামর্শ বিষয়ক অনুষ্ঠান, বিশেষ প্রসঙ্গঃ সমসাময়িক জনগুরম্নত্ব সম্পন্ন বিষয়াদির  উপর আলোকপাত, তথ্য ও প্রযুক্তি, শিক্ষা প্রসারের গুরম্নত্ব, দিন বদলের সংগ্রাম, জীবন ও জীবিকা সম্পর্কিত, অবৈতনিক নারী শিক্ষার গুরত্ব, প্রাকৃতিক দূর্যোগ মোকা- বেলায় করনীয়, নারী পাচার প্রতিরোধে করনীয়, খেলাধুলার সংবাদ, সাংস্কৃতিক জগতের খবর, কবিতা আবৃত্তি, রম্যকথা, উন্নত জীবন থেকে পাঠ, বিজ্ঞান ও তথ্য, ঘুরে আসি দেখে আসি, সাংস্কৃতিক বিশ্ব, ক্রীড়াঙ্গন, ক্রীড়া বিষয়ক আলোচনা, আজকের চট্রগ্রাম সহ নানা বিষয়ে কথিকা/ আলোচনা/ প্রতিবেদন/ সাক্ষাতকার/স্পট/জীবন্তিকা প্রচার করা হয়।

২১)  ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর জন্য অনুষ্ঠানঃ  ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর জন্য অনুষ্ঠানঃ চাকমা, মারমা, ত্রিপুরা,রাখাইন ও মিশ্র ভাষায় - ‘‘পাহাড়িকা’’ শিরোনামে  প্রতিদিনের একটি ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান প্রচার করা হয়। এতে বিভিন্ন সম্প্রদায়ের ছাত্র-ছাত্রীসহ শিল্পী-কথক- আলোচকরা অংশগ্রহণ করে থাকে।

22)       মহিলাদের  জন্য অনুষ্ঠানঃ‘‘অনন্যা’’ শিরোনামে ৩০ মিনিট স্থিতির সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান প্রচার করা হয়।  এতে সমাজের বিভিন্ন সত্মরের নারীরা অংশগ্রহণ করে থাকেন।

23)      যুবগোষ্ঠীর জন্য অনুষ্ঠানঃ ‘‘নবকেতন’’ শিরোনামে ৩০ মিনিট স্থিতির সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠান প্রচার করা হয়।  এতে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীসহ বিভিন্ন পেশার যুব সম্প্রদায় অংশগ্রহণ করে থাকে।

24)        শিশু-কিশোরদের জন্য অনুষ্ঠানঃ  ‘‘শিশু-কিশোর মেলা’’ শিরোনামে ৪৫ মিনিট স্থিতির সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান প্রচার করা হয়। এর মাধ্যমে শিশু - কিশোরদের (১০ম শ্রেণী পর্যমত্ম) প্রতিভার বিকাশ ঘটার সুযোগ তৈরী করা হয়।

25)       শিশু ও নারী উন্নয়ন যোগাযোগ কার্যক্রম বিষয়ক অনুষ্ঠানঃ ‘‘সুখের সন্ধানে’’ শিরোনামে ১০ মিনিট স্থিতির প্রাত্যহিক (শুক্রবার ব্যতীত) ম্যাগাজিন অনুণ্ঠান প্রচার করা হয়। নারী ও শিশু উন্নয়নে বর্তমান সরকারের গৃহীত কার্যক্রম ও এমডিজি’র লÿ্যমাত্রা অর্জনের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন আংগিকের অনুষ্ঠান প্রচার হয়।

26)     শিক্ষার্থীদের আসরঃ ৫ম থেকে ১০ম শ্রেণী পর্যমত্ম শ্রেণীসমুহের সিলেবাসভিত্তিক আলোচনা।

27)     সঙ্গীতঃদেশাত্নবোধক গান, আধুনিক গান, স্বাধীনবাংলা বেতারের গান, কবিগান, আঞ্চলিকগান, লোকগান, রবীন্দ্র সঙ্গীত, নজরম্নল সঙ্গীত এবং উন্নয়নমুলক বিষয়ভিত্তিক  গানসহ বিভিন্ন ধরনের গান ও সংগীতানুষ্ঠান দিনব্যাপী প্রচারিত হয়।

28)    বিজ্ঞাপন তরঙ্গঃ  সরকারের রাজস্ব অর্জনের/আয়ের লক্ষে প্রতিদিন প্রায় ৩ ঘন্টা ‘‘বিজ্ঞাপন তরঙ্গ’’ এর অনুষ্ঠান প্রচার করা হয়। এতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে বিজ্ঞাপন সংগ্রহ করে স্পনসরড অনুষ্ঠান প্রচার করা হয়।

29)       বিবিধঃ  সংগীত শিক্ষার আসর, সাধারণ জ্ঞানের অনুষ্ঠান, বিজ্ঞান বিষয়ক ম্যাগাজিন অনুণ্ঠান, প্রবীণদের জন্য বয়ঃভাবনা শিরোনামে অনুষ্ঠান, পরিবেশ বিষয়ক অনুষ্ঠান পরিবেশ ভাবনা, বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য শিক্ষাঙ্গন শিরোনামে অনুষ্ঠান, শ্রোতাদের চিঠিপত্রের জবাবের অনুষ্ঠান, জঙ্গীবাদ বিরোধী প্রচারণামুলক অনুষ্ঠান, নাটক যাত্রানুষ্ঠান-জীবমিত্মকা, সরকারের সাম্প্রতিক কর্মকান্ডের উপর অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন উদ্বুদ্ধকরণ মুলক অনুষ্ঠান বিভিন্ন আঙ্গিকে প্রচার করা হয়। অনুষ্ঠানের ফাঁকে ফাঁকে জনস্বার্থমুলক শেস্নাগান/ বিজ্ঞপ্তি/ঘোষণা নিয়মিত প্রচারিত হয়ে থাকে।

30)       সংবাদ প্রচারঃপ্রতি ঘন্টায় জাতীয় সংবাদ সমুহ ঢাকা থেকে রীলে করা হয়।

              স্থানীয় সংবাদঃ প্রতিদিন স্থানীয় সংবাদ বুলেটিনসমুহ গুরম্নত্বসহকারে প্রচার করা হয়।

 

স্থানীয় সংবাদ প্রচারের সংখ্যা - ৭ টি (প্রতিদিন)

 

ভাষা

প্রচার সংখ্যা

প্রচার সময়

বাংলা

৩টি

সকাল ৮.১০ মি.

দুপুর ১২.১০ মি.

সন্ধ্যা ৭.০০ মি.

ইংরেজী

১টি

সন্ধ্যা ৬.০৫ মি.

ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ভাষা

চাকমা

মারমা

ত্রিপুরা

৩টি

বেলা ২.০৫ মি.

বেলা ২.১০ মি.

বেলা ২.১৫ মি.

মোট =

৭টি

৩৫.০০ মি. প্রতিদিন


Share with :

Facebook Twitter